টেস্ট সিরিজেও হোয়াইটওয়াশ শ্রীলঙ্কা

জয়ের মুহুর্তে  হাত মেলাচ্ছন ভিরাট কোহলি। ছবিঃটুইটার

টি-২০ সিরিজে ভারতের কাছে ৩-০ তে হোয়াইট ওয়াশের পর টেস্টেও হোয়াইটওয়াশ হলো শ্রীলঙ্কা পুরুষ ক্রিকেট দল। বেঙ্গালুরুর এম চিন্নাসোয়ামি স্টেডিয়ামে সিরিজের শেষ টেস্টে ২৩৮ রানে হেরেছে লঙ্কানরা।

২য় টেস্টে টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে বিপর্যয়ে পড়ে ভারত। প্যান্ত ও শ্রেয়াস আইয়ারের কল্যাণে শেষ পর্যন্ত ২৫২ রান তুলতে সক্ষম হয় আকাশি নীলরা। ব্যাট হাতে প্যান্ত করেন ৩৯। আর ৯২ রানের দুদার্ন্ত ইংনিস খেলেন শ্রেয়াস আইয়ার। শ্রীলঙ্কার হয়ে তিনটি করে উইকেট নেন এম্বুলডেনিয়া ও জয়াভিকরামা। 

ব্যাট হাতে ৯২ রান করেন শ্রেয়াস আইয়ার। ছবিঃ টুইটার

জবাবে ব্যাট করতে নেমে কোন ধরনের প্রতিরোধই গড়তে পারে নি লঙ্কানরা। প্রথম তিন ব্যাটসম্যান ফিরে গেছেন দুই অঙ্কে পৌঁছানোর আগে। ব্যাট হাতে রান পেয়েছিলেন অভিজ্ঞ ম্যাথিউস। ৪৩ রান করেন তিনি।ডিকওয়েলা ছাড়া কেউ রান করতে না পারলে লঙ্কানরা ১০৯ রানে অলআউট হয়। ভারতের হয় ৫ উইকেট নেন জাস্প্রিত বুমরাহ্।

১ম ইংনিসে ৫ উইকেট নেন বুমরাহ্। ছবিঃ সংগ্রহীত

১৪৩ রানের লিড নিয়ে ব্যাট করতে নামা রোহিত শর্মা ও মায়াঙ্ক আগারওয়াল শুরুটা দুদার্ন্ত করেন। মায়াঙ্ক ২২ এ থামলেও রোহিত ৪৬ রান করেন। হনুমা বিহারী করেন ৩৫ রান। আরো একবার ব্যর্থ ভিরাট কোহলী। তবে রেকর্ড গড়েছেন রিশাভ প্যান্ত। ভারতীয় হিসেবে সবচেয়ে কম বলে অর্ধশতক হাকিয়েছেন এই ভারতীয় ব্যাটসম্যান। ২৮ বলে ৫০ করে ভেঙ্গেছেন কপিল দেবের রেকর্ড যিনি দ্রুততম হাফ সেঞ্চুরি করতে বল লাগিয়েছিলন ৩০ টি।শ্রেয়াস আইয়ার প্রথম ইংনিসের ফর্ম নিয়ে এসেছেন দ্বিতীয় ইংনিসেও। এলবিডব্লু হয়ে ফিরে যাওয়ার আগে ৬৭ রানের ইংনিস খেলেন তিনি।

ভারতের হয়ে টেস্টে দ্রুততম হাফ সেঞ্চুরীর রেকর্ড এখন প্যান্তের। ছবিঃ সংগ্রহীত

৩০৩ রানে ইংনিস ঘোষণা করে অধিনায়ক রোহিত শর্মা। এম্বুলডেনিয়া ৩ টি ও জয়াভিকরামা ৪ টি উইকেট নেন। ৪৪৭ রানের লক্ষ্যমাত্রা বেধে দেওয়া হয় শ্রীলঙ্কাকে।

৪ র্থ ইংনিসে মাত্র ২০৮ রানে অলআউট হয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। আরো একবার ব্যাটিং বিপর্যয়।শুরুতে ১ উইকেট হারানোর পর কুশাল মেন্ডিসকে সাথে নিয়ে ৯৭ রানের পার্টনারশিপ গড়েন অধিনায়ক ডিমুথ করুনারত্নে। ৫৪ রান করে অশ্বিনের বলে স্ট্যাম্পিং হয়ে সাজঘরে ফিরেন মেন্ডিস। করুনারত্মে লড়াই চালিয়ে যান। দেখা পেয়ে যান শতকের। সঙ্গ দেওয়ার মতো কেউ ছিলো না বলে অল-আউট হয়ে যায় তারা। বুমরাহ তিন উইকেট ও অভিজ্ঞ অশ্বিন ৪ উইকেট তুলে নেন।

একাই লড়ে গেছেন অধিনায়ক, পেয়েছেন সেঞ্চুরি।  ছবিঃ টুইটার

এই জয়ে হোয়াইওয়াশ নিশ্চিত হয় শ্রীলঙ্কার। টি-২০ সিরিজে একইভাবে হোয়াইটওয়াশ হয় তারা। ১ম টেস্টে ইংনিস ও ২২২ রানের ব্যবধানে জিতে ভারত।

ম্যাচ সেরা হয়েছেন শ্রেয়াস আইয়ার। পুরো সিরিজে দুদার্ন্ত খেলা প্যান্ত জিতেছেন সিরিজ সেরা পুরষ্কার।

অধিনায়ক হিসেবে সাফল্য পাচ্ছেন রোহিত শর্মা।অধিনায়ক হিসেবে টানা ১৪ ম্যাচ অপরাজিত তিনি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ