ড্র হচ্ছে পাকিস্তান-অস্ট্রেলিয়ার ১ম টেস্ট?

 


দীর্ঘ ২৪ বছর পর পাকিস্তানে কোন দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলছে অস্ট্রেলিয়া। রাওয়ালপিন্ডিতে ১ম টেস্টে মুখোমুখি হয়েছে দুইদল। ৪র্থ দিন শেষে ম্যাচের অবস্থা এমনই যে অলৌকিক কিছু না ঘটলে ড্র-ই হচ্ছে এই ঐতিহাসিক টেস্ট।

৪ই মার্চ শুক্রবার টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম। ব্যাটিং নেওয়ার সিদ্ধান্ত যে ভুল ছিলো না তা প্রমাণ করে দেন পাকিস্তানী ব্যাটাররা। ইমামুল হকের ১৭৫ ও সাবেক অধিনায়ক ১৮৫ রানের উপর ভর করে ৪ উইকেট হারিয়ে ৪৭৬ রান তুলে ডিক্লেয়ারেশন দেয় স্বাগতিকরা।

দুদার্ন্ত শুরু করেছিলেন দুই ওপেনার ইমাম ও শফিক
পাকিস্তানকে দুদার্ন্ত শুরু করে দিয়েছিলেন দুই ওপেনার ইমাম ও শফিক।ছবিঃ টুইটার

জবাবে ব্যাট করতে নেমে উসমান খাজা ও ডেভিড ওয়ার্নারের দৃঢ়তায় অস্ট্রেলিয়া স্কোরবোর্ড সচল রাখতে সক্ষম হয়। ডেভিড ওয়ার্নার ৬৮ রানে সাজিদ খানের বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফিরে। ৩ রানের জন্য সেঞ্চুরী থেকে বঞ্চিত হতে হয় উসমান খাজাকে, এই বাঁহাতি ব্যাটারের ইংনিস থামে ৯৭ রানে।

৯০ রানের ইংনিস খেলার পথে বিশ্বের ১নম্বর টেস্ট ব্যাটার
মারনুশ লাবুশেন। ছবিঃ টুইটার

দিল্লীর টেস্টের পর এই প্রথম দেশের বাইরে প্রথম চার ব্যাটারই অর্ধ-শতক হাকিয়েছেন। বর্তমান বিশ্বের ১ নম্বর টেস্ট ব্যাটার মারনুশ লাবুশেন ৯০ ও সাবেক ১ নম্বর স্টিভেন স্মিথ ৭৮ রান করে সাজঘরে ফিরেছেন।শাহিন আফ্রিদির বলে শফিকের কাছে ক্যাচ দিয়ে ফিরে গেছেন লাবুশেন। স্টিভ স্মিথকে শিকার বানিয়েছেন অভিজ্ঞ নুমান আলী।

লাবুশেনকে আউট করার পর সেলিব্রেশনে মগ্ন আফ্রিদি।
ছবিঃটুইটার
ক্যামেরুন গ্রিন,ট্রাভিস হেডকেও ফিরিয়েছেন নুমান। দিনের সবচেয়ে সফল বোলার তিনিই। ৩৭ ওভার বল করে ৪ উইকেট তুলে নিয়েছেন। ৪র্থ দিন শেষে অজিদের সংগ্রহ ৪৪৯ রান ৭ উইকেটের বিনিময়ে। এখনো ২৭ রানে পিছিয়ে আছে সফরকারীরা। ১ দিনে উইকেটের অনেক রদবদল নাহলে এই টেস্ট যে ড্র হচ্ছে তা বলাই যায়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

1 মন্তব্যসমূহ